করোনার কোপ, প্রয়াত সাহিত্যিক অনীশ দেব

বিবিধ ডট ইন: কোভিডে প্রয়াত সাহিত্যিক অনীশ দেব। আক্রান্ত হবার পরেই কোলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন ৭০ বছর বয়সী এই সাহিত্যিক।

হাসপাতাল সূত্রে খবর মঙ্গলবার সন্ধ্যে-রাত্রি নাগাদ সাহিত্যিকের অবস্থার অবনতি হওয়া শুরু হয়। AB+ গ্রুপের প্লাজমা প্রয়োজন হয়৷ নেটমাধ্যমে খোঁজাখুঁজি করে প্লাজমা জোগাড় হলেও ভেন্টিলেশন থেকে ফেরানো যায়নি সাহিত্যিক-কে। বুধবার ভোর-রাতে তাঁর মৃত্যু হয়।

তাঁর লেখা কল্পবিজ্ঞানের গল্পগুলি বেশ জনপ্রিয় ছিল পাঠক মহলে৷ কল্পবিজ্ঞান ছাড়াও তিনি লিখেছেন একাধিক গোয়েন্দা গল্প, ভৌতিক কাহিনী।

অনীশ দেবের জন্ম ১৯৫১ সালের ২২ অক্টোবর। অনীশ দেব ১৯৮৩ সালে কোলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগে লেকচারার হিসাবে কর্মজীবন শুরু করেন তিনি।

তাঁর লেখালেখির শুরু মাত্র সতেরো বছর বয়সে। তাঁর প্রথম লেখা প্রকাশিত হয় ১৯৬৮-তে অধুনালুপ্ত মাসিক রহস্য পত্রিকায়। লেখকের উল্লেখযোগ্য গ্রন্থ গুলির মধ্যে উল্লেখযোগ্য ‘সাপের চোখ’, ‘তীরবিদ্ধ’, ‘বজ্রগোলাপ’ ‘ভুতনাথের ডায়েরি’ ইত্যাদি।

অনীশ দেবের মৃত্যুর পর তাঁর কন্যা মোনালিসা দেব জানান

বাবার শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা কম ছিল। প্লাজমা প্রয়োজন ছিল। মমঙ্গলবার রাতে প্লাজমা জোগাড় করা হয়। কিন্তু অবস্থার অবনতি হতে বাবাকে ভেন্টিলেশনে দেওয়া হয়, ভেন্টিলেশনেই কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট হয়। বুধবার সকালে খবর পাই বাবা আর নেই।

২০১৯ সালে কিশোর সাহিত্যে অবদানের জন্য পশ্চিমবঙ্গ সরকার ‘বিদ্যাসাগর পুরস্কারে’ সম্মানিত করে অনীশ দেবকে। এছাড়াও পেয়েছেন প্রাচীন কলাকেন্দ্র সাহিত্য পুরস্কার ও ডঃ জ্ঞানচন্দ্র ঘোষ পুরস্কারের মতো সম্মানও।

 

লিখেছেন সায়ন্তন মন্ডল 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *