গোবরডাঙায় অক্সিজেন কনসেনট্রেটর পাঠালেন তুরস্কের রোমিও

বিবিধ ডট ইন: গোবরডাঙার চ্যাটার্জি পাড়ায় বেড়ে ওঠা অধুনা তুরস্কের বাসিন্দা বাঙালি যুবক রোমিও নাথ চারটি অক্সিজেন কনসেন্ট্রেটর পাঠালেন তাঁর জন্ম স্থানের জন্য।

ভারতে কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউ চলাকালীন অক্সিজেনের সংকট চরম থেকে চরমতম পর্যায়ে পৌঁছেছে প্রতিদিন। প্রতিদিনই গড়ে উনিশ হাজার মানুষ নতুন করে কোভিডে আক্রান্ত হচ্ছে এই রাজ্যে।
তার মাঝেই অক্সিজেন সহ একাধিক জীবনদায়ী ওষুধের কালোবাজারির জেরে প্রায় প্রতিদিনই গ্রেফতার করা হচ্ছে অপরাধীদের।

দেশের তথা রাজ্যের এহেন দুরাবস্থার কথা সুদুর তুরস্কে বসে বাবা শ্যামল নাথ ও মা শেফালি নাথের থেকে জানতে পারেন বিগত ১৪ বছর তুরস্কের বাসিন্দা রোমিও নাথ। আর তার পরেই চারটি অক্সিজেন কনসেন্ট্রেটর গোবরডাঙা শহরের জন্য পাঠানোর বন্দোবস্ত করেন তিনি।

ইস্তাম্বুলের একটি যোগা সেন্টারের মালিক রোমিও বিবাহে আবদ্ধ হন তুরস্কেরই এক মহিলার সাথে। সম্প্রতি একটি ভিডিও বার্তা প্রকাশ করে তাঁরা জানান,

ভারতের এই ভয়াবহ পরিস্থিতির কথা গোবরডাঙায় বসবাসরত আমার বাবা-মা ও ভাইয়ের কাছে প্রতিদিন শুনি৷ গোবরডাঙাতেই আমার বেড়ে ওঠা। এখানকার মানুষের পাশে থাকতে সামান্য সাহায্যের চেষ্টা করলাম।

গত সোমবার কলকাতা বিমানবন্দরে অক্সিজেন কনসেন্ট্রেটর গুলি এসে পৌঁছায় এবং তা রোমিওর পরিবারের তরফে তুলে দেওয়া হয় গোবরডাঙার পৌর প্রশাসক শংকর দত্তের হাতে।

পৌর প্রশাসক শংকর দত্ত বলেন,

কোভিডের এই আবহে শংকরের এহেন মানসিকতাকে কুর্নিশ। চারটি নতুন অক্সিজেন কনসেন্ট্রেটর গোবরডাঙার বাসিন্দাদের অক্সিজেন সংকট মেটাতে অনেকটাই সাহায্য করবে।

লিখেছেন সায়ন্তন মন্ডল

হ্যালো! আপনার মতামত আমাদের কাছে মূল্যবান

%d bloggers like this: