‘পাঁচবছর সরকার চলতে পারলে, কৃষকরাও ততদিন আন্দোলন করতে পারবে,’ অকপট রাকেশ টিকায়েত

 

বিবিধ ডট ইন: কেন্দ্র সরকারের লাগু করা তিনটি কৃষক বিল খারিজের দাবীতে গতি বছর ২৬ নভেম্বর থেকে টিকরি, সিংগু এবং গাজিপুর সীমান্তে অবস্থান আন্দোলন করছে হাজার হাজার কৃষক। গতি বৃহস্পতিবার কৃষক নেতা রাকেশ টিকায়েত গাজিপুর সীমান্তে কৃষকদের সাথে দীপাবলি উদযাপন করেন। এই অনুষ্ঠানের নাম দেওয়া হয়েছিল ‘দো দিয়ে, শহীদো কে লিয়ে’। নিহতি কৃষক নেতাদের স্মরণেই এই সমাবেশ। সেই সমাবেশের কেন্দ্র সরকারের প্রতি একের পর এক ক্ষোভ উগরে দিলেন রাকেশ টিকায়েত। গত ২২ জানুয়ারি সরকার শেষবারের জন্য তাদের সঙ্গে কথা বলেছে। তাঁর কথায়,তাঁরা সরকারকে ২৬ নভেম্বর অবধি সময় দিয়েছে। ২৬ নভেম্বর কৃষক আন্দোলনে এক বছর পূর্ণ হবে। সরকার এই সময়ের মধ্যে দাবি না মেনে নিলে কৃষকরা বৃহত্তর আন্দোলনে নামার জন্য ট্র্যাক্টর নিয়ে প্রস্তুত।

সরকার তো কৃষকদের দাবি মেনে নিচ্ছে না তবে তার কতদিন আন্দোলন করবেন? এর উত্তরে তিনি জানিয়েছেন,

সরকার যদি ৫ বছর চলতে পারে তবে তাদের আন্দোলনও ৫ বছর চলবে। তিনি জানা, শুধুমাত্র উপস্থিতি নয়, চিন্তা ভাবনা মানুষকে বড় করে তোলে।

উল্লেখ্য, এক বছরের বেশি সময় পেরিয়ে গেলেও নিজেদের দাবিতে অনড় আন্দোলনরত কৃষকরা। আগামী ২৬ নভেম্বর মধ্যে আইন তিনটি প্রত্যাহার করা না হলে দিল্লি সীমান্তে আন্দোলনের তীব্রতা আরও বাড়বে স্যোসাল মিডিয়ায় এমনই হুশিয়ারি দিয়েছেন রাকেশ। টুইট করে তিনি লিখেছেন,

কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত সময় রয়েছে, তারপরে ২৭ নভেম্বর থেকে কৃষকরা আশেপাশের গ্রাম থেকে ট্রাক্টরে করে দিল্লি সীমান্তের বিক্ষোভস্থলে পৌঁছে যাবে এবং তাদের উপস্থিতি এই নিজের দাবির স্বপক্ষে এই প্রতিবাদকে শক্তিশালী করবে।

হ্যালো! আপনার মতামত আমাদের কাছে মূল্যবান

%d bloggers like this: