ব্লগ: একটা রিভলভার, কয়েকটা মৃত‍্যু, ক্ষুদিরাম কোনও ওয়েব সিরিজ চায়নি

একটা রিভলভার, কয়েকটা মৃত‍্যু, ক্ষুদিরাম কোনও ওয়েব সিরিজ চায়নি শেষ চিঠিতে মেদিনীপুর যেতে চেয়ে লিখেছিল ছেলেটা। যাওয়া হয়নি। সবার সব ইচ্ছে পূরণ হয় না। কত চাওয়া ভেসে যায় না পাওয়ার স্রোতে! শুনেছিলেম, শিবঠাকুরের আপন দেশে সব হিসেব কড়ায় গণ্ডায় মেলানো আছে। যে কাঠায় মাপ, সে কাঠায় উসুল। আজ নয়তো কাল, হবেই।

সেই যে তেরো-চোদ্দ বছরের ছেলেটা ‘রিভলভার’ চেয়েছিল, চেঁচিয়ে, হেমচাঁদ কানুনগোর কাছ থেকে, তার তো না-পাওয়ার লাইন অনেক লম্বা। তার কীই বা এসে যায়, এই এক শতাব্দী পরে তাকে কোন ওয়েব সিরিজে কে ‘অপরাধী’ হিসেবে দেখাল, তা নিয়ে?

আরও পড়ুন: সমাজসংস্কার থেকে পাবলিক লাইব্রেরি, উত্তরপাড়ার ‘কাণ্ডারি’ জমিদার জয়কৃষ্ণ (প্রথম পর্ব)

কিছু মানুষ থাকে, যাদের চাওয়া পাওয়ার দ্বন্দ্বটা নেই। চাওয়া বলতে তো একটা ‘রিভলভার’, তাই যখন আগাম নির্দেশ থাকে, অপারেশানের পর রিভলভার ফেলে দেওয়ার, ফেলতে পারে না। ওইটুকুই তো চাওয়া। যে বুকে গনগনে আগুনের বাসা, যৌনতাসংক্রামিত ওয়েব সিরিজ তার ঠিকানা নয়।

সাধারণ বাঙালি সর্বদাই আত্মশ্রীকাতর জনগোষ্ঠী। তাই ছেলেটা শেষবেলায় তার হয়ে আইনি লড়াই লড়বার জন‍্য মেদিনীপুরের একজন উকিলও পায়নি। সুদূর রংপুরের আইনজীবী করেছিলেন চেষ্টা। হায় জন্মভূমি! তোমার প্রত‍্যাখ‍্যানের চেয়ে মৃত‍্যু সুখের। হাসি হাসি পরব ফাঁসি…

শতাব্দী-প্রাচীন সেই আগুনকে চ‍্যানেলে যেভাবেই দেখানো হোক, কিচ্ছু যায় আসে না। ঝরাপাতারা বসন্তের আহ্বানে ঝরে, ঝরে ঝরার আনন্দে, রোম‍্যান্টিসিজমের নির্লজ্জ বাসনায় নয়।

আরও পড়ুন: ব্লগ: রামায়ণ থেকে গণতন্ত্র, কী ভাবতেন রবীন্দ্রনাথ— অনির্বাণ ঘোষ

সে অপেক্ষায় থাকে পুনর্জন্মের।
আর একটা কচি পাতার সবুজ গাছের বুকে।
আর একটা আগুনের ফুলকি, দাবানলের ক্ষমতায় বীর।

সমস‍্যা অন‍্য জায়গায়। যে পুলিশকর্মী ছেলেটাকে স্কুলের সামনে ধরেছিল, তার নাক ভেঙে গিয়েছিল ঘুষিতে। তবু প্রাণ পণ করে ধরে রেখেছিল। ব্রিটিশ সরকারের সামান‍্য কর্মীর ‘কর্তব‍্যনিষ্ঠা’। উপযুক্ত প্রতিদ্বন্দ্বীর অভাবে একটা পূনর্জন্ম দীর্ঘায়িত হয়ে চলেছে।

যারা একটা ওয়েবসিরিজ রিশুট করার মত কর্তব‍্যনিষ্ঠ নয়, আত্মবিশ্লেষন করার মত সাহসী নয়,  ক্ষুদিরাম বোস তাদের দেখতেও পায় না। চাওয়া-পাওয়ার অনন্তপ্রবহমান স্রোতে তুচ্ছ খড়কুটো কত ভেসে যায়! ভেসে যায় কত সোফাসেটে শোওয়া সুখী ডিজিটাল প্রতিবাদ! কেউ কেউ খুঁজে পায় রাষ্ট্রীয় চক্রান্ত, হিন্দি আগ্রাসন, কিম্বা বাঙালী নিস্পৃহতা। ব্লার করা মুখে স্বদেশির গন্ধ কেউ কেউ পায়, কেউ পায় না।
জোড়াতালি দেওয়া দেশ ভাগভাগ হয়— বাঙালি, বিহারি, তামিল, গুজরাটি প্রভৃতি নানা ভাগে। ছেলেটা যদি ভগৎ হত? সাভারকার বীর? চন্দ্রশেখর আজাদ হত? দেশপ্রেমের ক্ষীর?

আরও পড়ুন: ধারাবাহিক: জলতরঙ্গ (প্রথম পর্ব) — দীপান্বিতা বিশ্বাস

কেউ ভাবে বয়কট করবে চ‍্যানেল, কিংবা পরিচালক, কিংবা ওয়েব সিরিজ। আর কেউ ভাবে, সে দায় নেবে নিশ্চয়ই সরকার! ‍রাজনৈতিক চাপানউতোর চলতে থাকে। ভোটের গরমে হয়তো বা একটা কোনও ‘হিংসাত্মক ঘটনা’, ঠিকঠাক টার্গেট করা। তারপর একটা বায়োপিক!

ওদিকে শত বছরের পুরোনো একটা স্মৃতি, অশরীরীর মত ঠান্ডা, দমকা হাওয়ায় পার হয়ে যায়। শেষবার ধরা পড়ার সময় দু’পকেটে ছিল দু’টো রিভলভার। আমি কিছু অত‍্যাচারীর মৃত‍্যু চাই।

জীবনের একমাত্র চাওয়া।

আর্কাইভ: প্রেরণা   ক্লিনিক   ব্লগ   বিজ্ঞান   লাইফস্টাইল   খেলা   ভ্রমণ   অ্যাঁ!   এন-কাউন্টার

আপডেট থাকুন। ফলো করুন আমাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ:

 

একটা রিভলভার, কয়েকটা মৃত‍্যু, ক্ষুদিরাম কোনও ওয়েব সিরিজ চায়নি লিখলেন কৌশিক মুখোপাধ্যায়।

একটা রিভলভার, কয়েকটা মৃত‍্যু, ক্ষুদিরাম কোনও ওয়েব সিরিজ চায়নি বিবিধ ডট ইন

কৌশিক মুখোপাধ্যায়

যোগাযোগ: ফেসবুক

One thought on “ব্লগ: একটা রিভলভার, কয়েকটা মৃত‍্যু, ক্ষুদিরাম কোনও ওয়েব সিরিজ চায়নি

  • August 22, 2020 at 11:24 am
    Permalink

    লেখা পড়ে পুরো ধারণা টাই পাল্টে গেল, শুধু শুধুই তো এত চেঁচামেচি।
    সেই মহাপ্রাণ কে অনেক আগেই অনেক কিছু সহ‍্য করতে হয়েছে। আজ তাকে কে অপরাধী বলল, কি হয় তাতে?

    ধন‍্যবাদ।

    Reply

হ্যালো! আপনার মতামত আমাদের কাছে মূল্যবান

%d bloggers like this: