রাজ ঠাকরের ‘হুমকি’র জের, বন্ধ হল ঔরঙ্গজেবের সমাধিসৌধ!

 

বিবিধ ডট ইন: মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনার হুমকির জেরেই বন্ধ করে দেওয়া হল সম্রাট ঔরঙ্গজেবের সমাধিসৌধ! চলতি মাসের শুরুতে ওই সমাধিস্থল দর্শনে আসেন AIMIM নেতা আসাদুদ্দিন ওয়েইসি। তারপর থেকেই বিতর্ক ঘনিয়ে উঠেছে। ওয়েইসি ওই সমাধিস্থল দর্শন করার সময়ই শরদ পাওয়ার প্রশ্ন তুলেছিলেন, হঠাৎ কেন এখানে এলেন ওয়েইসি। এর ফলে কোনও বিতর্ক তৈরি হবে কি না, সেই আশঙ্কাও প্রকাশ করেন বর্ষীয়ান নেতা।

তাঁর আশঙ্কা সত্যি করে এরপরই শিব সেনা ও রাজ ঠাকরের দলের তরফে সমালোচনা করা হয় ওয়েইসির মহারাষ্ট্র সফরের। এরপরই এমএনএস নেতা গজানন কালে টুইটারে ক্ষোভ উগরে দেন। প্রশ্ন তোলেন, শিবাজির ভূমিতে এক মোঘল শাসকের সমাধি কেন থাকবে। সেই সঙ্গে তিনি দাবি করেন, যদি ওই সমাধিস্থল ধ্বংস করে দেওয়া হয়, তালে ঔরঙ্গজেবের উত্তরাধিকারীরা এখানে এসে মাথা ঠুকতে পারবেন না।

বৃহস্পতিবার ‘আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়া’র তরফে জানানো হয়েছে যে আউরঙ্গাবাদে খুলদাবাদের ওই স্মৃতিসৌধের নিরাপত্তা আরও বাড়ানোর বন্দোবস্ত করা হয়েছে। সেখানে কাউকে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না। পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে আপাতত পাঁচদিনের জন্য সেটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। জানা গিয়েছে, সমাধিস্থলটির সুরক্ষা নিয়ে উদ্বিগ্ন উদ্ধব ঠাকরের সরকারও। তাই সেখানে নিরাপত্তা জোরদার করতে মঙ্গলবার থেকেই ৬ জন পুলিসকর্মীকে মোতায়েন করা হয়েছে।

এহেন পরিস্থিতিতে সৌধটির নিরাপত্তা বাড়লেও মসজিদ কর্তৃপক্ষ নিশ্চিন্ত হতে পারেননি। তাঁরা সমাধিক্ষেত্র আপাতত কয়েক দিন বন্ধ রাখার আবেদন জানিয়েছিলেন। সেই আরজি মেনেই পাঁচ দিনের জন্য ওই সমাধিক্ষেত্র বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এ প্রসঙ্গে এএসআই আউঙ্গাবাদের সার্কল ইনস্পেক্টর মিলনকুমার চৌবে জানিয়েছেন, মসজিদ কর্তৃপক্ষ এবং পুলিশের সুপারিশের জেরে সমাধিক্ষেত্র বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

হ্যালো! আপনার মতামত আমাদের কাছে মূল্যবান

%d bloggers like this: