অডিও প্ল্যাটফর্মে তমালের ‘ময়লা খুব’, আসছে মিউজিক ভিডিও

এখনই শেয়ার করুন

বিবিধ ডট ইন: সঙ্গীত শিল্পী তমাল কান্তি হালদার বিগত দু’মাস ধরে তাঁর বহু প্রতিক্ষীত অ্যালবাম ‘অসুখ’-এর গানগুলি এক এক করে প্রকাশ করছেন। এবার সেই অ্যালবামেরই তৃতীয় গান ‘ময়লা খুব’ প্রকাশিত হয়েছে চলতি মাসেই। উল্লেখযোগ্য বিষয় হলো যখন গান প্রকাশের ক্ষেত্রে ইউটিউবে মিউজিক ভিডিও প্রকাশের প্রবণতা বেশি চোখে পড়ে তখন শিল্পী শুধুমাত্র ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে গানটির অডিও রিলিজের পথে হেঁটেছেন।

এর আগে এই অ্যালবামের দু’টি গান প্রকাশিত হয়েছে। শ্রোতাদের উচ্চাশা ফের দেখা গেল নতুন গানটি নিয়ে। তৃতীয় গানটি বাংলা গানের শ্রোতাদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে ইতিমধ্যেই। ‘অসুখ’ অ্যালবাম যে ভিন্ন স্বাদের এবং সাইকেডিলিক রক-এর ওপর তৈরি করা হয়েছে সে কথা আগেই বিবিধ-কে জানিয়েছিলেন শিল্পী। সেইমতো ময়লা খুবও একই রকম ভিন্নধর্মী একটি কাজ বলে মনে করছেন শিল্পীমহলের অনেকেই।

গানটিতে তমালের বহুদিনের পুরোনো বন্ধু এবং সতীর্থ অর্ণব রায় (রাণা) গিটার এবং ফকিরা ব্যান্ডের সদস্য কুণাল বিশ্বাস বেস গিটার বাজিয়েছেন। রাণা দীর্ঘদিন গানবাজনা থেকে কিছুটা দূরে ছিলেন। এই গানের হাত ধরেই আবার কাজে ফিরেছেন তিনি।

অনির্বাণ দত্ত শিল্পীর পুরনো বন্ধু এবং ব্যান্ড মেম্বার। তিনি এই গানে ড্রামস বাজিয়েছেন। শিল্পীর মতে, এই গানের ড্রামস প্যাটার্নটিও খুব অন্যরকম ভাবে বাজানো হয়েছে। অনির্বাণ এর দক্ষতায় গানটিতে আরও একটি পালক জুড়েছে তাঁর বাজানোয়।

গানটি প্রসঙ্গে তমাল বিবিধ-কে জানিয়েছেন,

গানটির মধ্যে একটা মনোটোনাস ব্যাপার আছে, যেটার জন্য গানটি আমার খুব ভাললাগে। মিউজিকের মধ্যেও একটা ভাষা আছে যেটা সাইকেডিলিক রকের সঙ্গে বেরিয়ে আসছে। বৃষ্টির সঙ্গে একটা যোগাযোগ রয়েছে। যখন বৃষ্টি পড়ছে তখন একটা মানুষের মধ্যে বিভিন্ন ইচ্ছে তৈরি হচ্ছে, যে ইচ্ছেগুলো সমাজের কাছে অশ্লীল। কিন্তু ইচ্ছেগুলো খুব স্বাভাবিক এবং প্রাকৃতিক। মানুষটি বুঝতে পারছেন যে, তাঁর ইচ্ছেগুলো সমাজের কাছে খুব নোংরা। কিন্তু বুঝেও সে তাঁর ইচ্ছে থেকে বেরোতে পারছেন না। এইরকম একটা ভাবনার কথা বলেছি গানটিতে।

শুধুমাত্র অডিও রিলিজ করার মতো একটা সাহসী পদক্ষেপ নেওয়া প্রসঙ্গে তমাল জানালেন,

আমার কিছু শ্রোতাবন্ধুরা আছেন, যাঁদের থেকে মতামত নিই যে, তাঁরা শুধু অডিও রিলিজ করলে শুনবেন কি না! অনেকেই অডিও রিলিজে সায় দিয়েছেন। অন্যান্য গানগুলোর মতো লিরিক ভিডিও খুব তাড়াতাড়ি আমি বানাতে পারছিলাম না। এদিকে আমার বন্ধু এবং শিল্পী শমীক রায়চৌধুরি এই গানটি শুনে একটি অসাধারণ মিউজিক ভিডিওর পরিকল্পনা করেন। কিন্তু সেটা তৈরি হতে আরও বেশকিছুটা সময় লাগবে। আমি চেয়েছিলাম ভ্যালেন্টাইনস ডে-র দিন এই গানটা রিলিজ করতে। অনেকেই বারণ করেছিল, এই ধরনের গান সেদিন না রিলিজ করতে। তারপরই জেদ বেড়ে যায়। রিলিজ হওয়ার পর দেখছি প্রচুর শ্রোতা শুনছে, সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোচনা হচ্ছে, দেখছি। যেহেতু অন্য কোনও মাধ্যমে এই গান শোনার আর উপায় নেই। তাই সবাই-ই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে শুনছেন। তাই অন্য গানগুলোর মতোই এই গানের সাড়াও যথেষ্ট ভাল। বরং বলা চলে মানুষের গান শোনার অভ্যাস মিউজিক ভিডিও দেখা থেকে ধীরেধীরে বদলাচ্ছে।

গানটিতে তাঁর দুই বন্ধুর কাজ করা নিয়ে তমাল খুবই খুশি। তমাল বলছেন,

রাণা অনেকদিন কোনও কাজ করেনি। আমার গানে ওর কামব্যাক হচ্ছে, এটা সত্যি আমার কাছে খুব আনন্দের। একসঙ্গে অনেক গান বাজনা করতাম এককালে, এই গানে অসাধারণ বাজিয়েছে ও। আর কুণাল এর সঙ্গে কাজ করার ইচ্ছে ছিল অনেকদিন ধরেই। কুণাল খুব ম্যাচিওর মিউজিশিয়ান বলেই এখানে বাজাতে ও আগ্রহী হয়েছিল। নয়তো বেস গিটার খুব সামান্যই বেজেছে। কিন্তু যেটা বেজেছে সেটা অসাধারণ। ওই অংশটা যে বুঝবে সে বাজাবেই, এই আস্থা ওঁর প্রতি আমার ছিল যে ও রাজি হবেই। এই গানটি শুনতে অনেকটা সোজা মনে হলেও এখানে অনেক জটিল কর্ড, ড্রামস এর প্যাটার্ন ব্যবহার হয়েছে। যদি কোনও শিল্পী টেকনিক্যালি গানটি স্টাডি করেন, তাহলে বুঝতে পারবেন।

‘ময়লা খুব’ এর ভিন্নস্বাদে মেতে এখন বাংলা গানের শ্রোতারা। ‘অসুখ’-এর পরবর্তী গানগুলো এবং ‘ময়লা খুব’-এর মিউজিক ভিডিও নিয়ে একটা বড় চমক অপেক্ষা করে রয়েছে দর্শকদের জন্য, এমনটাই আভাস দিয়েছেন শিল্পী। সুতরাং চমক পেতে তমালের পরবর্তী ঘোষণার দিকে তাকিয়ে থাকতে হচ্ছে সবাইকে।

 

অডিও প্ল্যাটফর্মে তমালের ‘ময়লা খুব’, আসছে মিউজিক ভিডিও লিখলেন অরিঘ্ন মিত্র।


এখনই শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।