বিদেশের মাটিতে মহিষাসুরমর্দিনী, সম্প্রচার করল কার্পে ডিয়েম

বিবিধ ডট ইন: বাঙালির প্রাণের উৎসব দুর্গাপুজো। আর পুজো মানেই মহিষাসুরমর্দিনী। করোনা আবহে এবার বাঙালির পুজোর আনন্দে ভাঁটা পড়েছে ঠিকই, কিন্তু মহিষাসুরমর্দিনী-কে ঘিরে বাঙালির যে উন্মাদনা, তা একই থেকেছে। শুধু এদেশে বসেই নয়, মহিষাসুরমর্দিনী নিয়ে প্রবাসী বাঙালির মধ্যেও যে উন্মাদনা, তার আঁচ পাওয়া গেছে এবারের দুর্গাপুজোয়। এই প্রথম প্রেক্ষাগৃহ থেকে বেরিয়ে এসে দেশের মানুষের কাছে পৌঁছে গেল বিদেশের পুজোর সুর। ২৫ বছরের পুরোনো পুজোর অনুষ্ঠানও এবার প্রথম ডিজিটাল মাধ্যমে দেখলেন পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ। উদ্যোগ নিয়েছিল কার্পে ডিয়েম। (বিদেশের মাটিতে মহিষাসুরমর্দিনী, সম্প্রচার করল কার্পে ডিয়েম)

  

জনপ্রিয় এক কৌতুক অভিনেতা কিছুদিন আগেই বলেছিলেন, ‘মঙ্গল গ্রহেও খুঁজলে বোধহয় দু-একজন বাঙালি পাওয়া যাবে।’ পৃথিবীব্যাপী বাঙালির যে অবাধ বিচরণ তা আজ সর্বজনবিদিত। দেশ-বিদেশের বিভিন্নপ্রান্তে ওঁরা ছড়িয়ে দিচ্ছেন বাংলা ও বাঙালির সংস্কৃতিকে। প্রবাসে থাকা বাঙালির এবার ঘরে ফেরাও অনিশ্চিত। এই অনিশ্চয়তা ভুলে ভালবাসা দিয়ে, নতুন করে সাজিয়ে তুলেছে ‘মহিষাসুরমর্দিনী’, সুদূর সান ফ্রান্সিসকোতে থাকা প্রবাসী বাঙালির উদ্যোগে সান ফ্রান্সিসকো বে এরিয়া আর্টিস্ট-এর পক্ষ থেকে এবারের নিবেদন ‘মহিষাসুরমর্দিনী’ সম্প্রচারিত হল কার্পে ডিয়েম-এর ফেসবুক পেজ থেকে।

   

এক প্রবাসী সোনালী ভট্টাচার্যের নির্দেশনায় অনুষ্ঠিত হয় এই কনসার্ট। অংশগ্রহণ করেছিলেন ভারতীয় এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র দুই দেশেরই শিল্পীরা। অনুষ্ঠানে ছিলেন অর্পিতা চট্টোপাধ্যায়, সুচেতা বসু, প্রসেনজিৎ বিশ্বাস, সুদীপ নাগ, শুভ সেনগুপ্ত, সন্দীপ গোস্বামী, বিশ্বপেস চট্টোপাধ্যায়, প্রদোষ সরকার, বৃন্দা গোবিন্দন, বেন ইকুনিন, এবং ওয়ালেস হার্ভি। পৃথিবীর পশ্চিম প্রান্ত থেকে ভালবাসার বার্তা নিয়ে উৎসবের মরশুমের বাংলা ও বাঙালির আবেগকে নতুন রূপে নতুন মাধ্যমে তুলে ধরছেন প্রবাসী বাঙালিরা। (বিদেশের মাটিতে মহিষাসুরমর্দিনী, সম্প্রচার করল কার্পে ডিয়েম)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *