কল্যাণকে ‘মাতাল’ বলে কটাক্ষ করে পোস্টার মদন মিত্রের অনুগামীদের

 

বিবিধ ডট ইন: এবার শ্রীরামপুরের তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে তীব্র বিক্ষোভ শুরু করলেন বিধায়ক মদন মিত্রের অনুগামীরা। সাংসদের কুশপুত্তলিকা দাহ সহ তাঁর নামে কুরুচিপূর্ণ পোস্টার নিয়ে বিক্ষোভে সামিল তাঁরা।

অভিষেক প্রসঙ্গে কল্যাণের মন্তব্যে দ্বৈরথ কার্যত চরমে উঠেছিল। পরে অবশ্য দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় প্রকাশ্যে এই ধরনের কাদাছোঁড়াছুড়ি না করার নির্দেশ দেন। তবে এতে বাড়তি মাত্রা যোগ করে বিতর্ক উসকে দিয়েছিলেন কামারহাটির তৃণমূল বিধায়ক মদন মিত্র।

রাস্তায় পোড়ানো হয় কল্যাণের কুশপুতুলও। শনিবার কলকাতার ভবানীপুরে একদল তৃণমূল সমর্থক তৃণমূল সাংসদ তথা আইনজীবী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ দেখান। তাঁদের হাতে দেখা যায় কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি বিকৃত করে পোস্টার। তাতে লেখা ‘ধিক্কার’। কোনওটাতে আবার লেখা, ‘মাতাল তোকে জানতে হবে আগামীকে মানতে হবে’। আবার তাঁরা স্লোগান দিলেন, তাঁরা সবাই মদন মিত্রের অনুগামী। গোটা ঘটনাকে কেন্দ্র করে ফের শুরু হল রাজনৈতিক চাপানউতোর।

তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশে দাঁড়িয়ে মদন তীব্র ভাষায় নাম না করে কল্যাণকে বিঁধে বলেন,

কয়েকজন বুড়ো রাতারাতি খুব জ্ঞান দিচ্ছেন। মার খাওয়ার সময় তো এঁরা ছিলেন না কখনও। তৃণমূল পার্টির মাথায় রয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তার পরেই অভিষেক রয়েছেন। আমি অভিষেকের পাশেই দাঁড়াব।

তিনি আরও বলেন,

অভিষেক ফালতু কথা বলেননি। ও নিজের এলাকায় কোভিড মডেল তৈরি করতে চেয়েছে। করে দেখিয়েছে। এই পার্টির নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। আর এই পার্টিতে থেকেই কেউ যদি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জিন টেস্ট করে, মদন মিত্র তা বরদাস্ত করবে না।

হ্যালো! আপনার মতামত আমাদের কাছে মূল্যবান

%d bloggers like this: