ফের করোনার থাবা, সোমবার থেকে লকডাউন অমরাবতীতে

এখনই শেয়ার করুন

বিবিধ ডট ইন: কোভিড নিয়ে নয়া সমস্যা নতুন করে ভাবাচ্ছে ভারতবাসীকে।  সংক্রমণে নতুন করে উদ্বেগ বাড়িয়েছে মহারাষ্ট্র। সে রাজ্যে দৈনিক করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ফের বাড়ছে অস্বাভাবিক হারে। এই পরিস্থিতিতে মহারাষ্ট্রের অমরাবতী জেলায় লকডাউন জারি করা হল।

এবার ক্রমবর্ধমান করোনা আক্রান্তের পরিপ্রেক্ষিতে, রাজ্য জুড়ে বিভিন্ন জমায়েতের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা আরোপের সিদ্ধান্ত নিল উদ্ধব ঠাকরের মহারাষ্ট্র সরকার। রবিবারে নতুন করে প্রায় ৬,৯৭১ জন করোনা আক্রান্ত হন এই রাজ্যে, এমনটাই জানা গেছে সংবাদসূত্রে।

রবিবার সন্ধ্যায় একটি প্রেস বিবৃতি দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী জানান,

সোমবার থেকে মহারাষ্ট্রের সব রাজনৈতিক,ধর্মীয় এবং সামাজিক সমাবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হলো।

তিনি এও বলেন, জনসমাগম হতে পারে। তাই মহারাষ্ট্রে আগামী কয়েকদিন কোনও রাজনৈতিক আন্দোলনের অনুমতিও দেওয়া হবে না।

মহারাষ্ট্রে করোনা ভাইরাসের নতুন ওয়েভ-এর আগমন ঘটল কিনা, তা জানতে আরও ১৫ দিন সময় লাগতে পারে। উদ্ধব ঠাকরে এদিন বলেন,

লকডাউন চাপিয়ে দেওয়া কোভিড ১৯-এর সমাধান হতে পারে না। কিন্তু এই ভাইরাসের চক্রকে ভেঙে দিতে লকডাউন একটি কার্যকরী পন্থা মাত্র।

তিনি রাজ্যবাসীকে মাস্ক পরবার কথা উল্লেখ করে বলেন,

করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করবার জন্য মাস্ক হল ঢালের মতন। তাই মাস্ক পরুন, শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখুন, সামাজিক দূরত্ব মেনে চলুন।

শনিবার পুণেতে নতুন করে ৮৪৯ জন কোভিড -১৯ আক্রান্ত শনাক্ত হওয়ার পরে, জেলা প্রশাসন রাত ১১ টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত নাইট কারফিউ জারি করেছে। ফের স্কুল,কলেজ, কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে যবতমালেও ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত স্কুল, কলেজ বন্ধ রাখার নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে।

এদিকে, করোনা রুখতে গুজরাতের চার শহর আমেদাবাদ, সুরাট, ভাদোদরা ও রাজকোটে নাইট কার্ফু জারি থাকবে বলে জানানো হয়েছে। ১৬ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত মধ্যরাত থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত কার্ফু জারি থাকবে। আগে, রাত ১১টা থেকে পরের দিন সকাল ৬টা পর্যন্ত নাইট কার্ফুর সময়সীমা ছিল। রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা কমানোর লক্ষ্যেই এই পদক্ষেপ। দেখা গিয়েছে, নাইট কার্ফুর ফলে আমেদাবাদ ও ভাদোদরায় করোনা সংক্রমণের হার কমেছে। যদিও চিন্তায় রেখেছে রাজকোট ও সুরাট।

 

লিখলেন সায়ন্তন মণ্ডল


এখনই শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।