চুরি করতে ঢুকে ঘরের অবস্থা দেখে শিবরামকে চিঠি লিখেছিল এক চোর

বিবিধ ডট ইন: সারা জীবন ধরেই প্রতারণার শিকার হয়েছেন শিবরাম। বিভিন্ন ক্ষেত্রে ঠকলেও সেই বিষয়ে বিন্দুমাত্র বিচলিত ছিলেন না। আর টাকাপয়সা জমানোরও ঘোর বিরোধী ছিলেন। ঘরে তালা পর্যন্ত লাগাতেন না তিনি। স্বাভাবিকভাবে সকলেই অবাধে প্রবেশ করতে পারত তাঁর ঘরে। একদিন ঢুকেছিল এক চোর। তবে ঘরের মধ্যে চুরি করার মতো কোনও জিনিস না পেয়ে সেদিন একটা চিঠি লিখে রেখে গিয়েছিল সে। সঙ্গে এক প্যাকেট ধূপকাঠি আর একটি ১০ টাকার নোট। চুরি করার বদলে একটি পরামর্শ দিয়েছিল সেই চোর। তাতে এও বলা ছিল, তার কথা মানলে শিবরামেরই ভাল হবে। কী লেখা ছিল সেই চিঠিতে? (চুরি করতে ঢুকে ঘরের অবস্থা দেখে শিবরামকে চিঠি লিখেছিল এক চোর)

আরও পড়ুন: বিষ কেনার টাকা নেই, প্লিজ হেল্প’, চিঠিতে লিখেছিলেন দাদাসাহেব ফালকে

মুক্তারামবাবু স্ট্রিটের মেসেই বাস শিবরামের। নিয়ম-শৃঙ্খলার যে তিনি ধার ধারতেন না, তার ছাপ সর্বত্রই লক্ষ্য করা যায়। ঘরে তালা দেওয়া তো তাঁর ধাতেই ছিল না। একদিন ঘরে ছিলেন না শিবরাম। সেই সুযোগে ধূপকাঠি বিক্রেতা সেজে ঘরে ঢোকে এক চোর। কিন্তু শিবরামের ঘরের দৈন্যদশা দেখে চুরি করার বদলে বাড়ির মালিকের প্রতি সহানুভূতি জন্মাল তার মনে। তাই লিখে রেখে গেল একটি চিঠি। তাতে লেখা ছিল, ‘ভাই, তোমার ঘরে চুরি করতে এসে দেখলাম আমার থেকে তোমার অবস্থা আরও খারাপ।’ তাই ১০টাকার একটি নোট আর এক প্যাকেট ধূপকাঠি রেখে গিয়েছিল সঙ্গে। শুধু তা-ই নয়, এই দৈন্যদশা থেকে মুক্তির উপায়ও বলা ছিল সেই চিঠিতে। চোরের বক্তব্য, ‘এই ১০টা টাকা রেখে গেলাম। এই টাকায় এই কোম্পানির ধূপকাঠি কিনে ফেরি করো। এভাবে আর কত দিন চলবে! আমার পরামর্শ শুনলে জীবনে উন্নতি করবে।’ ঘরে ফিরে সেই চিঠি পেয়েছিলেন শিবরাম।

 

আপডেট থাকুন। ফলো করুন আমাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ:

 

আর্কাইভ: প্রেরণা   ক্লিনিক   ব্লগ   বিজ্ঞান   লাইফস্টাইল   খেলা   ভ্রমণ   অ্যাঁ!   বিনোদন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *