হায়দরাবাদের পুজো মণ্ডপে ঢুকে তাণ্ডব বোরখা পরা দুই মহিলার!

 

বিবিধ ডট ইন: তেলেঙ্গনার রাজধানী হায়দ্রাবাদের দুর্গাপুজো মণ্ডপে ঢুকে তান্ডব চালালেন দুই বোরখা পরিহিত মহিলা। এই ঘটনা ঘিরে তুমুল উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে এলাকায়। ইতিমধ্যেই পুলিস গ্রেফতার করেছে অভিযুক্তদের। পুলিস সূত্রে খবর, ঐ দুই মহিলার মানসিক সমস্যা রয়েছে। এর আগেও গীর্জায় ঢুকে একই কান্ড ঘটিয়েছিলেন তাঁরা।

ঘটনার সূত্রপাত গত মঙ্গলবার রাতে। ঐ দিন রাত ৯ টা নাগাদ বোরখা পরে মণ্ডপে ঢোকেন দুই মহিলা। কেউ কিছু বুঝে ওঠার আগেই মণ্ডপে থাকা প্রতিমা ভাঙচুর করে তারা। ঘটনাটি ঘটেছে হায়দরাবাদের খাইরতাবাদ এলাকায়। এর পরেই ঘটনাস্থলে আসে পুলিস। গ্রেফতার করা হয় অভিযুক্তদের।

পুলিস সূত্রে খবর, এর আগেও একটি গীর্জায় ঢুকে একই কান্ড ঘটান ঐ দুজন। তাদের বিরুদ্ধে দুটি পৃথক মামলা করে এই ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে। পুলিসেএ দাবি ঐ দুই মহিলার মানসিক সমস্যা রয়েছে।

দেশজুড়ে চলছে দেবীবন্দনার আয়োজন। তারই মাঝে হায়দরাবাদের ঘটনায় কিছুটা হলেও উত্তেজনা ছড়িয়েছে। বিশেষ করে নেটদুনিয়ায় এনিয়ে জোর তরজা চলছে। তবে হায়দ্রাবাদের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে এবং কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি বলেই জানিয়েছে স্থানীয় পুলিস।

তবে এই প্রথম নয়। বাংলাতেও একাধিকবার ঘটেছে এই ঘটনা। এর আগে বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষ তাঁর ফেসবুক পেজে একটি ভিডিও আপলোড করেছেন। আর নিজের ওয়ালে তিনি অভিযোগ করেন, ‘যারা বাংলাদেশের দুর্গাপুজোর উপর দুষ্কৃতী হামলা নিয়ে খুব চিন্তিত, তারা কি জানেন যে খোদ পশ্চিমবঙ্গের পূর্ব মেদিনীপুর জেলার এগরা সেন্ট্রাল বাস স্ট্যান্ডের একটি পুজোর দুর্গা প্রতিমা কিছু দুষ্কৃতী এসে ভেঙে দিয়েছে। ঘটনা ধামাচাপা দিতে রাজ্যের পুলিস ও তার উচ্চ আধিকারিকেরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে তড়িঘড়ি প্রতিমা বিসর্জনের ব্যবস্থা করে।’

এছাড়াও দুর্গামূর্তি ভাঙা হয়েছে বাংলাদেশেও। সূত্রের খবর, দুর্গাপুজো উপলক্ষ্যে প্রতিমা তৈরি করা হচ্ছিল বাংলাদেশের বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জের কাশীপুর মন্দিরে। মূর্তি গড়ার কাজ শেষ হয়েছে সবেমাত্র। মূর্তিতে রঙের পোঁচ পড়া বাকি। কিন্তু এরই মধ্যে ঘটে গেল হিংসার ঘটনা। গত রবিবার স্থানীয় বাসিন্দারা মন্দিরে ঢুকে মূর্তিগুলিকে ভাঙা অবস্থায় দেখেন। শনিবার রাতে দুষ্কৃতীরা হামলা চালিয়ে এই কাণ্ড ঘটিয়েছে বলে অনুমান করা হচ্ছে।

হ্যালো! আপনার মতামত আমাদের কাছে মূল্যবান

%d bloggers like this: