হোমাই ভিয়ারাওয়ালা: ভারতের ‘ফার্স্ট লেডি অফ দ্য লেন্স’

 

পুরনো দিনের কথা হোক কিংবা আজকের দিনে দাঁড়িয়ে নারী হয়ে সমাজের সমস্ত বাধা পেরিয়ে অগ্রসর হওয়া খুব একটা সহজ বিষয় নয়! তবুও এই বাধাবিপত্তিকে নস্যাৎ করে কঠিন রাস্তাকে আরও সহজ করে তুলেছেন যে সমস্ত নারী তাঁদের কথা না বললেই নয়। তাঁদের মধ্যে একজন হলেন হোমাই ভিয়ারাওয়ালা। অবশ্য তিনি সকলের কাছে ডালডা ১৩ নামেই পরিচিত। ২০১৭ সালে তাঁকে সম্মান জানিয়ে গুগল ডুডল আর্ট তৈরি করা হয়, যার নাম দেওয়া হয় ‘ফার্স্ট লেডি অফ দ্য লেন্স’।

হোমাই ভিয়ারাওয়ালার ছদ্মনাম ‘ডালডা ১৩’-এর পিছনে রয়েছে অন্য গল্প। তাঁর জীবনের সঙ্গে এই ১৩ সংখ্যাটি যেন বারবার জড়িয়ে গিয়েছে। হোমাইয়ের জন্ম ১৯১৩ সালে, তিনি বিয়ে করেন ১৩ বছর বয়সে। মাত্র ১৩ বছর বয়সে প্রথম ছবি তুলেছিলেন। সবশেষে প্রথম গাড়ি কেনার পর সেটার পেছনেও নম্বর লেখা দেখেন হোমাই ডিএলডি-১৩। সেই থেকেই জন্ম হল এক নতুন ছদ্মনামের ডালডা ১৩।

হোমাই ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের শেষের দিনগুলো ও স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ের ছবি ক্যামেরাবন্দি করেছেন। হোমাইয়ের ছবি তোলার অনুপ্রেরণা তাঁর প্রেমিক পরবর্তীতে স্বামী টাইমস অফ ইন্ডিয়ায় কর্মরত মানকশো। স্বাধীনতার সময় নতুন দেশে গড়ে ওঠা স্টিল প্ল্যান্ট, বাঁধ এছাড়াও বিংশ শতকে ভারতে আগত বিখ্যাত মানুষদের ছবিও তিনি তুলে ধরেছেন তাঁর ক্যামেরায় যেমন রেজা শাহ পাহলাভী, মার্টিন লুথার কিং, জুনিয়র হো চি মিন, মার্শাল টিটো, ব্রেজনাভ এবং ক্রুশেভের মতন রাশিয়ান নেতা।

ছবি তোলার সময় হোমাই বেছে নেন শাড়িকে। শাড়ি পরেই তিনি ছবি তুলতেন। সেই সময় পার্সি সমাজে শাড়ির পাশাপাশি অন্যান্য পোশাকের চল থাকলেও হোমাইকে শাড়িতেই দেখা যেত। ১৯৩০ সালে প্রতিষ্ঠানিকভাবে প্রথম কাজ করতে শুরু করেন ‘দ্য ইলাস্ট্রেটেড উইকলি অফ ইন্ডিয়া’তে। তিনি সাদাকালোতেই বেশি ছবি তুলতে ভালোবাসতেন।

১৯৫৬ সালে তরুণ দলাই লামা ভারতে এলে তাঁর ছবি ক্যামেরাবন্দি করেন টাইম লাইফের জন্য। তারপর থেকে আলোকচিত্রী হিসেবে হোমাইয়ের পরিচিতি বাড়তে থাকে।তবে হোমাইয়ের সব থেকে বিখ্যাত ছবি গান্ধীজির শেষকৃত্যের ছবি।

ভারতের প্রথম মহিলা আলোকচিত্রী হোমাই ভিয়ারাওয়ালা ওরফে ডালডা ১৩ ‘পদ্মবিভূষণ’ পুরস্কারে সম্মানিত হন ২০১১ সালে। অসাধারণ দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে জন্ম নেওয়া হোমাই শেষ জীবনে একটি ছোট্ট অ্যাপার্টমেন্টে দিন কাটিয়েছেন।২০১৫ সালের ১৫ই জানুয়ারি হোমাই ভিয়ারাওয়ালার জীবনাবসান ঘটে।

 

লিখলেন কাকলি কর্মকার

হ্যালো! আপনার মতামত আমাদের কাছে মূল্যবান

%d bloggers like this: