গাড়ি দুর্ঘটনায় বাবা-মায়ের মৃত্যু, ৭ ‘অনাথ’কে দত্তক নিলেন এই দম্পতি

এখনই শেয়ার করুন

বিবিধ ডট ইন: বছর কয়েক আগে পাম উইলস যখন বাড়ির সন্ধানে ফেসবুকের নিউজ ফিড স্ক্রল করছিলেন, তখন একটি ভয়াবহ দুর্ঘটনার খবর চোখে পড়ে। যে দুর্ঘটনার জেরে বাবা-মা উভয়কেই হারায় সাত ভাইবোন। এই খবর দেখে মুহূর্তেই ভেঙে পড়েছিলেন পাম।

সাত ভাইবোনের সঙ্গে যোগাযোগের একটা নম্বর দেওয়া ছিল সেই প্রতিবেদনে। পাম বলেন, ‘আমি এটা ব্যাখ্যা করতে পারব না। তবে আমি কেবল জানতাম যে, আমি ওদের মা হতে পারি।’

সঙ্গে থাকুন। ফলো করুন আমাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ:

তবে সেদিন পাম পাশে পেয়েছিলেন তাঁর স্বামী গ্যারিকে। গ্যারিও পামের মতো উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছিলেন ওই সাত ভাইবোনকে নিয়ে।

পাম বলেন, ‘ইশ্বর যা চেয়েছিলেন সেটাই হল।’ সেই রাতেই পাম এবং গ্যারি প্রতিবেদনে দেওয়া নম্বরটিতে কল করেছিলেন। পাম স্মরণ করে বলেন, ‘আমাদের জানানো হয়েছিল যে তারা ইতিমধ্যে কয়েক হাজার কল পেয়েছে।’

তবে দু’মাস পরে পাম এবং গ্যারির পরিবারে যুক্ত হয়েছিল অ্যাডেলিনো (১৫), রুবি (১৩), আলেসিয়ার (৯), অ্যান্টনি (৮), অব্রিয়েলা (৭), লিও (৫) এবং জেন্ডার (৪)।

ছোট বলেই হয়তো তাদের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করা সহজ ছিল, এমনটাই জানিয়েছেন পাম।

‘প্রথম ছ’মাস ওরা ঘুমাতে চাইত না। সেই রাতগুলো দুঃস্বপ্নের মতো,’ বলেন পাম। তবে একদিন একটা ঘটনা আজও মনে আছে পামের। তিনি বলেন, ‘অব্রিয়েলা একদিন রাতে আমার ঘরে আসে। আমি ওকে জিজ্ঞেস করি, ‘তুমি কি খারাপ কোনও স্বপ্ন দেখেছ?’ তার উত্তরে অব্রিয়েলা বলেছিল, না, তুমি যে কাছেই আছ, সেটা নিশ্চিত হতে এলাম।’

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Pam Willis (@second.chance.7)

গত বছর আগস্ট মাসে সাত ভাইবোনকে দত্তক নিয়েছে গ্যারি এবং পাম। ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন তাঁরা। ১৯৮৮ সালে পাম এবং গ্যারির কিশোর বয়স থেকে দত্তক নেওয়া পর্যন্ত দেখানো হয়েছে ভিডিওটিতে।

লিখেছেন শ্রেয়া দাস


এখনই শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *