আসানসোলের কয়লাখনির মধ্যেই লুকিয়ে সশস্ত্র দুষ্কৃতী! অভিযানে আসছে ধানবাদের ‘বুলেটপ্রুফ বাহিনী’

 

বিবিধ ডট ইন: সোমবাররবিবার মাঝরাতে কয়লা চুরি করতে ভাগ্যলক্ষ্মী খনিতে পৌঁছয় প্রায় ২০ জনের একটি দুষ্কৃতী দল। পুলিস সূত্রে খবর, তামার তার কেটে খনির ভেতর ঢুকে যায় তারা। সোমবার সারাদিন আসানসোলের কুমারডুবি ভাগ্যলক্ষ্মী কয়লাখনির মধ্যে আশ্রয় নেয় বেশ কয়েকজন সশস্ত্র দুষ্কৃতী। সোমবার সারাদিন প্রায় ২৪ ঘন্টা লাগাতার পুলিস ও সিআরপিএফ এর যৌথ বাহিনী লাগাতার গুলির লড়াইয়ের পরও একজনকেও কাবু করতে পারেনি। যদিও তাদের আত্মসমর্পণ করার জন্য এখনও চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে প্রশাসন। কুমারডুবি ভাগ্যলক্ষ্মী কয়লাখনি এই মূহুর্তে ঘিরে রেখেছে রাজ্য পুলিস ও সিআরপিএফ এর যৌথ বাহিনী।

জানা যাচ্ছে, কয়লাবাহী ট্রলি খনির ভেতর নামিয়ে চিরকুট পাঠানো হয় দুষ্কৃতীদের। তাতে লেখা হয় আত্মসমর্পণের করার বার্তা। কিন্তু তার কোনও প্রতিক্রিয়া এখনও পর্যন্ত মেলেনি। জানা যাচ্ছে সোমবার রাতেই ধানবাদ পুলিসের বিশেষ ‘বুলেটপ্রুফ’ বাহিনী হাজির হবে কুমারডুবি ভাগ্যলক্ষ্মী কয়লাখনিতে। তার পরেই দুষ্কৃতীদের ধরতে অভিযান চালাবে প্রশাসন।

খনির মধ্যে থেকেই গোলাগুলির পাশাপাশি বোমাও ছোড়া হয়। পুলিসও বাইরে থেকে গুলি ছোড়ে। কুমারডুবি ভাগ্যলক্ষ্মী কয়লাখনির ম্যানেজারের সঙ্গে কথা বলে কীভাবে অন্য পথে খনির ভেতরে যাওয়া যায় সেবিষয়েই আলোচনা করেছেন পুলিস কর্তারা। যদিও কোনও পথ না পেয়ে অবশেষে ধানবাদের বুলেটপ্রুফ বাহিনীর দারস্থ হয়েছে প্রশাসন।

হ্যালো! আপনার মতামত আমাদের কাছে মূল্যবান

%d bloggers like this: