কোভিড-যুদ্ধ জয়ের পর শিশুদেহে হানা দিচ্ছে ডায়বেটিস! দাবি গবেষণায়

 

বিবিধ ডট ইন:সারা বিশ্ব জুড়ে গত দুই বছরেরও বেশি সময় কোভিডের দাপট অব্যাহত থাকলেও স্বস্তির কথা, শিশুদের শরীরে এখনও সেভাবে থাবা বসায়নি এই মারন রোগ। তুলনামূলক ভাবে শিশুরা কম আক্রান্ত হচ্ছেন এই রোগে। অতিমারির একেবারে গোড়ায় প্রবীণেরা সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছেন। ডেল্টা স্ট্রেনে মাঝবয়সিদের বেশি ভুগতে দেখা গিয়েছে। বর্তমানে ওমিক্রন স্ট্রেনে ছোটদের মধ্যে করোনা সংক্রমণের ঘটনা বেড়েছে। ওমিক্রনে প্রাণসংশয় হয়তো কম, কিন্তু চিন্তা বাড়াচ্ছে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া।

চিকিৎসকদের দাবী, করোনা থেকে সেরে ওঠার পর ডায়বেটিস টাইপ ১ ও ডায়বেটিস টাইপ ২ তে আক্রান্ত হচ্ছেন অধিকাংশ শিশু। ইউরোপে ইতিমধ্যেই এ রকম একাধিক ঘটনা রিপোর্ট করেছেন চিকিৎসকেরা। তাঁরা জানিয়েছেন, কোভিড থেকে সেরে ওঠার পরে টাইপ ১ এবং টাইপ ২ ডায়াবিটিসের ঝুঁকি বেড়ে যাচ্ছে ছোটদের। কারও কারও ‘ডায়াবেটিক কিটোঅ্যাসিডোসিস’ দেখা যাচ্ছে। এতে রক্তে উপস্থিত শর্করা থেকে শক্তি তৈরির জন্য প্রয়োজনীয় ইনসুলিন যথেষ্ট পরিমাণে তৈরি হয় না। এ অসুখে শিশুর প্রাণসংশয়ও ঘটতে পারে।

সম্প্রতি এই সংক্রান্ত একটি গবেষণাপত্র প্রকাশ করেছে আমেরিকার ‘সেন্টারস ফর ডিজ়িজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন’ সিডিসি। সিডিসি জানাচ্ছে, মেডিক্যাল ইনসিয়োরেন্সের নথি পরীক্ষা করে দেখা গিয়েছে আমেরিকাতেও কোভিডের পরে ১৮ বছর বয়সের নীচে ডায়াবিটিস আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা প্রায় ৩০ শতাংশ বেড়ে গিয়েছে। সিডিসি-র গবেষক শ্যারন সায়াদ বলেন জানাচ্ছেন, ডায়াবিটিসের ঝুঁকি ৩০ শতাংশ বেড়ে যাওয়া কিন্তু খুবই বিপজ্জনক।রিপোর্টের মূল লেখক সায়াদ জানিয়েছেন, কিছু বিষয় এখনও অস্পষ্ট। যেমন, কোভিডের পরে ধরা পড়া ডায়াবিটিস মারাত্মক আকার নেবে কি না জানা নেই। এ-ও স্পষ্ট নয়, এটি সাময়িক অসুস্থতা নাকি।

হ্যালো! আপনার মতামত আমাদের কাছে মূল্যবান

%d bloggers like this: