সাবধান! পর্যাপ্ত ঘুমের অভাবে ভুগতে পারেন এই ৮টি সমস্যায়

বিবিধ ডট ইন: (সাবধান! পর্যাপ্ত ঘুমের অভাবে ভুগতে পারেন এই ৮টি সমস্যায়) করোনার প্যান্ডেমিক পরিস্থিতিতে আমরা কমবেশি সবাই পরিচিত ‘ডিপ্রেসন’ শব্দটির সঙ্গে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ঢুঁ মারলেই তা টের পাওয়া যায়। কেউ কেউ তো এই বিষয়ে ‘এক্সপার্ট ওপিনিয়ন’ দিতেও কার্পণ্য করেন না। কিন্তু প্রাথমিকভাবে এই ডিপ্রেসন থেকে মুক্তি পাওয়ার একটি বৈজ্ঞানিক উপায় হল পর্যাপ্ত ঘুম বা সাউন্ড স্লিপ, যা এখন সবার জীবনেই অনুপস্থিত। আর পর্যাপ্ত ঘুমের অভাবে যে শুধু ডিপ্রেসনের সমস্যা হয়, তা নয়। এছাড়াও দেখা যায় নানা সমস্যা। দীর্ঘদিন ধরে অপর্যাপ্ত ঘুমের ফলে যে, যে অসুবিধার সম্মুখীন হতে পারেন আপনি:

১. স্ট্রেস: যেকোনও রকম মানসিক সমস্যার উৎপত্তি কিন্তু স্ট্রেস। তাই স্ট্রেস থেকে শুরুতেই বেরিয়ে আসতে না পারলে আসতে পারে বিপদ।

২.  খিটখিটে মেজাজ:  ঘুম ঠিকঠাক না হলে কিন্তু সারাদিনের কোনও কাজ ঠিকভাবে হয় না। স্বাভাবিক জীবন ব্যাহত হয়।

৩.  ডায়াবেটিস: বর্তমান জনসংখ্যার প্রায় ৭০% মানুষ ডায়াবেটিক। এটি কিন্তু সম্পূর্ণভাবে লাইফ স্টাইল ডিসঅর্ডার, যা শুধু নিজে আসে, তা-ই নয়, সঙ্গে আরও অনেকগুলো রোগকেও নিয়ে আসে। তাই ডায়াবেটিসকে প্রভাবিত করে এমন যেকোনও জীবনযাত্রা আমাদের এড়িয়ে চলতেই হবে।

৪. হার্টের সমস্যা: হার্ট  আমাদের শরীরের ইঞ্জিন। তাই সর্বদা সঠিকভাবে একে চালনা করতেই হবে। এর জন্য যেমন সঠিক পুষ্টি দরকার, তেমনই দরকার পর্যাপ্ত ঘুম।

৫.  হরমোনাল সমস্যা: ইনসোমনিয়া থেকে দীর্ঘস্থায়ী হরমোনাল সমস্যা আসে, যা সারাজীবন ভোগাতে থাকে। বিশেষ করে মেয়েদের ক্ষেত্রে পঞ্চাশোর্ধ্ব বয়েসে অবাঞ্ছিত পিরিয়ড সমস্যাসহ অন্যান্য অসুবিধা দেখা যায়।

৬. ওবেসিটি: যেকোনও রোগের প্রধান কারণ বলা হয় ওবেসিটিকে। শরীরে চর্বির পরিমাণ যত বাড়তে থাকে, রোগের সম্ভাবনাও বাড়তে থাকে। তাই প্রত্যেক মানুষের যতটা সম্ভব নিজেদের সঠিক ওজন বজায় রাখতেই হবে।

৭.  গ্যাস্ট্রিক সমস্যা: ইনসোমনিয়া কিন্তু আমাদের গাট হেলথ-কেও যথেষ্ট ক্ষতি করে। হজমের সমস্যা, রিফ্লাক্স ডিজিজ ইত্যাদি দেখা যায়।

৮.  বাইপোলার ডিসঅর্ডার: মুড সুইং দিয়ে শুরু হয়ে যেকোনও কাজে অনীহা, ক্লান্তিভাব, অবসাদ, ক্ষুধামন্দ— এগুলি হল বাই পোলার ডিসঅর্ডারের প্রধান লক্ষণ।

তাই বুঝতেই পারছেন, নিজেকে সুস্থ রাখতে প্রতিদিন পর্যাপ্ত ঘুম বা সাউন্ড স্লিপ কতটা দরকার!

সাবধান! পর্যাপ্ত ঘুমের অভাবে ভুগতে পারেন এই ৮টি সমস্যায় লিখলেন রাখি চট্টোপাধ্যায়।

ক্লিনিক: ব্রেকফাস্টে কী খাবেন, কেন খাবেন?

রাখি চট্টোপাধ্যায়

ক্লিনিক্যাল ডায়েটিসিয়ান, ডায়াবেটিস এডুকেটর ও যোগ থেরাপিস্ট

Attached to Narayana Multi-speciality Hospital

Msc in Clinical Nutrition & Dietetics

Certified Diabetes Educator from National Diabetes Educator programme.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *